IMG-LOGO
বাড়ি প্রথম পৃষ্ঠা দেশে অক্সিজেন নেই, টিকা নেই, ওষুধ নেই, কী করে আত্মনির্ভর হবে ভারত? : মুখ্যমন্ত্রী
প্রথম পৃষ্ঠা

দেশে অক্সিজেন নেই, টিকা নেই, ওষুধ নেই, কী করে আত্মনির্ভর হবে ভারত? : মুখ্যমন্ত্রী

by Admin - 2021-04-26 14:37:30 1 Views 0 Comment
IMG




কলকাতা, ২৬ এপ্রিল  : “শিল্পক্ষেত্রের অক্সিজেন নিয়ে ৫০০০ অক্সিজেনের ব্যবস্থা করেছি। মোদী আত্মনির্ভর হতে বলছেন। এদিকে দেশে অক্সিজেন নেই, টিকা নেই, ওষুধ নেই, কী করে আত্মনির্ভর হবে ভারত?“

সোমবার মিনার্ভা থিয়েটারে ভার্চুয়াল সাংবাদিক বৈঠকে এই মন্তব্য করলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফের অভিযোগ করলেন, আমাদের অক্সিজেন অন্য রাজ্যে পাঠিয়ে দিচ্ছে। এর সঙ্গে শেষ নির্বাচনী প্রচার সারলেন তিনি। 

সোমবার সপ্তম দফার ভোট ছিল রাজ্যে। এর মধ্যে কলকাতার মমতার নিজের কেন্দ্র ভবানীপুরেও ভোট ছিল। সম্মেলন সেরে ভোট দিতে যান মমতা। তার আগেই শেষ প্রচারেও নির্বাচন কমিশনকে ‘বিজেপির মুখপাত্র’ বলে কটাক্ষ করলেন মমতা। কমিশনকে কটাক্ষ করে মমতার তোপ, ‘‘আপনারা বিজেপির ময়না, বিজেপির আয়নায় পরিণত হয়েছেন।’’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “কোভিডের জন্য ভয় পেয়ে ভোট দেওয়া বন্ধ করবেন না। তাতে গণতন্ত্রের ক্ষতি হবে। বিজেপির লাভ হবে।“ বললেন, ‘‘আমাদের এখন দু’দিকেই জ্বালা। একদিকে কমিশন সব জায়গা দখল করে রেখেছে। কেন্দ্রীয় বাহিনী কলেজ, স্কুল, স্টেডিয়াম সব দখল করে রেখেছে। তার জন্য আমি সেফ হাউস করতে পারছি না। একদিকে কোভিড, অন্যদিকে  আমাদের উপর জুলুম হচ্ছে।’’ 

অনুব্রত মণ্ডলের বাড়িতে সিবিআইয়ের কর্তার যাওয়া নিয়ে অভিযোগ জানালেন মমতা। বললেন, ‘‘বিজেপি এত ভীতু যে কেষ্টর বাড়িতে গিয়েছিল। দু’জন সিবিআই কর্তা গিয়ে বলেছে ২৭ এপ্রিল হাজিরা দিতে হবে। যেন ওর কোনও কাজ নেই। রাজ্যে ভোট চলছে। ও জেলা সভাপতি। ওকে এখন হাজিরা দিতে হবে?’’ অনুব্রতকে হাজিরা দিতে বারণ করেছেন বলে জানিয়েছেন মমতা। বললেন, ‘‘ আমি ওকে বলেছি একদম যাবি না। ভোট মিটলে তারপর যাবি।’’

মমতা বলেন, “আমি বলেছিলাম বদলা নয় বদল চাই। কিন্তু এখন বলছি বদল নয়। কারণ আমাদের সরকারই তো থাকবে। তবে বিজেপি-র সঙ্গে কী করতে হবে সেটা আমরা দেখে নেব। আমি বলে রাখছি, মা মাটি মানুষের সরকার সম্পূর্ণ মেজরিটি নিয়ে জিতবে। নন্দীগ্রামে ১০টা বুথে রিগিং হয়েছে। তাই ওই ১০া বুথে ফল খারাপ হতে পারে। কিন্তু বাকি সব বুথে ধপাস ধপাস করে পড়বে ওরা’’। 

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “কেন্দ্রীয় বাহিনী এখানে এসে জায়গা দখল করেছে। তিন মাস ধরে ওদের এখানে এনে জায়গা ভরিয়ে রেখেছে বিজেপি। ওদের জন্য এই করোনা পরিস্থিতিতেও সেফ হাউস করতে পারছি না। কমিশনকে আমার অনুরোধ, দয়া করে এদের নিয়ে যান।’’

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “ভেবেছিলাম হয়তো নির্বাচন কমিশনের শুভ বুদ্ধির উদয় হবে। কিন্তু হয়নি। একটা লিস্ট করেছে নির্বাচন কমিশন কলকাতা পুলিশকে দিয়ে। তাতে ‘তৃণমূল গুনস’ মানে তৃণমূলের গুণ্ডা বলে উল্লখ করছে ওরা। তাদের গ্রেফতারির তালিকাও করেছে। এসব আমরা সহ্য করব না।“